April 12, 2024 9:30 pm
Home Featured শেয়ারবাজারে নতুন ধারার আবির্ভাব!

শেয়ারবাজারে নতুন ধারার আবির্ভাব!

by fstcap

গত ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে শেয়ারবাজারে চলছে ধারাবাহিক পতন। আলোচ্য সময়ের মধ্যে ৮ কর্মদিবস পতন হয়েছে। বিপরীতে দুই কর্মদিবস উত্থানের দেখা মিলেছে। এই ১০ কর্মদিবসের মধ্যে ৮ কর্মদিবসে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ২০৯ পয়েন্ট। আর দুই কর্মদিবসে সূচক বেড়েছে ৩০ পয়েন্ট। অর্থাৎ সর্বশেষ ১০ কর্মদিবসে শেয়ারবাজারের সূচক খোয়া গেছে ১৭৯ পয়েন্ট।

এদিকে, গত কয়েক কর্মদিবস যাবত শেয়ারবাজারে নতুন এক ধারার আবির্ভাব ঘটেছে। প্রতিদিন লেনদেনের প্রথম ভাগে উভয় শেয়ারবাজারে সূচকের বড় উত্থান দেখা যায়। কিন্তু শেষ ভাগে সূচক ফের পতনের বৃত্তে এসে স্থান নেয়। আগের দিন মঙ্গলবারও একই রকম দৃশ্যের অবতারণা হয়। ওইদিন লেনদেনের প্রথম ভাগে ২৭ পয়েন্টের বেশি সূচক উঠে যেতে দেখা যায়। তারপর ধীরে ধীরে সূচক নিচে নামতে থাকে। শেষ বেলায় সূচক পতনের বৃত্তেই এসে স্থির হয়।

আজও একই রমম দৃশ্যের অবতারণা হয়েছে। আজও দিনের প্রথম ভাগে ডিএসই-তে ২৭ পয়েন্টের বেশি সূচক বেড়ে লেনদেন হয়। এই সময়ে লেনদেনের গতিও ভালো দেখা যায়। কিন্তু বেলা ১১টার পর সূচক সংশোধন হতে থাকে। এক পর্যায়ে সূচক রেডজোনে ঢুকে যায়। তারপর ১২টার দিকে সূচক আবার কিছুটা ইতিবাচক ধারায় মোড় নেয়। কিন্তু বেশি দূর এগুতে পারেনি। আধা ঘন্টার মধ্যে সূচক আবারও রেডজোনে টার্ন নেয়। যা শেষ পর্যন্ত অব্যাহত থাকে।

RSI ইন্ডিকেটরে বিনিয়োগ উপযোগী ১৩ শেয়ার

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাজারের লেনদেন দেখে মনে হচ্ছে বড় বিনিয়োগকারীরা কম দামে শেয়ার সংগৃহ করার কৌশলে নেমেছেন। যে কারণে সূচক দেখার মতো কিছুটা বাড়লেই তারা সেল প্রেসার দিয়ে উত্থান থামিয়ে দেয়। আবার সূচক বেশি নামতে থাকলে তারা বাই প্রেসার দিয়ে পতনও থামিয়ে দেয়। ফলে কিছুদিন যাবত বাজার সাইড লাইনে চলছে। তবে বাজারে যে নতুন স্মার্ট মানি ঢুকছে, তা স্পষ্ঠ বুঝা যায়। তাদের মতে, বাজার এখান থেকেই শক্তি সঞ্চয় করে ওপরের দিকে ধাবিত হবে।

বুধববারের বাজার পর্যালোচনা

আজ বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ডিএসইর প্রধান প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪.০৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে প্রায় ৬ হাজার ২৬৮ পয়েন্টে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরীয়াহ সূচক ১.৯৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৩৬৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৫.৩৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ১৩২ পয়েন্টে।

আজ ডিএসইতে ৮৮৮ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আগের কর্মদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৮৯৮ কোটি ২০ লাখ টাকার।

আজ ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৯৬টি প্রতিষ্ঠানের ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৫টির, কমেছে ১৭৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৪টির।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ ১৪ কোটি ৪৯ লাখ ৭৫ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২০ কোটি ৮৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিট।

আজ সিএসইতে ২৭১টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৫টির, কমেছে ১২২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টি প্রতিষ্ঠানের।

আগের দিন সিএসইতে ২৫৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যার মধ্যে দর বেড়েছিল ১০৮টির, কমেছিল ১২০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৮টি প্রতিষ্ঠানের।

সূত্রঃ  শেয়ারনিউজ

 

sharebazar new system dhara RSI

You may also like