May 24, 2024 4:23 pm
Home Finance আয় ও মুনাফা বাড়লেও লভ্যাংশ কমেছে ম্যারিকো বাংলাদেশের

আয় ও মুনাফা বাড়লেও লভ্যাংশ কমেছে ম্যারিকো বাংলাদেশের

by fstcap

দেশের পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বহুজাতিক কোম্পানিগুলো বরাবরই বড় অংকের লভ্যাংশ দেয়। তবে বছর দুয়েক ধরে কোম্পানিগুলোর লভ্যাংশের পরিমাণ ক্রমান্বয়ে কমছে। ওষুধ ও রসায়ন খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানি ম্যারিকো বাংলাদেশ সর্বশেষ ৩১ মার্চ সমাপ্ত ২০২৪ হিসাব বছরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ২০০ শতাংশ চূড়ান্ত নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে, যা ১০ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন। যদিও এসময়ে কোম্পানিটির আয় ও নিট মুনাফা আগের তুলনায় বেড়েছে।

ম্যারিকো বাংলাদেশ দেশের পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয় ২০০৯ সালে। তালিকাভুক্তির পর ২০০৯ হিসাব বছরে কোম্পানিটি ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। এরপর ২০১০ হিসাব বছরে ২০ শতাংশ, ২০১১ হিসাব বছরে ২৫, ২০১২ হিসাব বছরে ১০০ ও ২০১৩ হিসাব বছরে ১৫০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল কোম্পানিটি। ২০১৪ হিসাব বছরে ম্যারিকো বাংলাদেশ ৯০০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে। এরপর প্রতি বছরই উচ্চ হারে লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। এর মধ্যে ২০১৫ হিসাব বছরে ৪২৫ শতাংশ, ২০১৬ হিসাব বছরে ৪৫০, ২০১৭ হিসাব বছরে ৫০০, ২০১৮ হিসাব বছরে ৬০০, ২০১৯ হিসাব বছরে ৬৫০, ২০২০ হিসাব বছরে ৯৫০, ২০২১ হিসাব বছরে ৯০০, ২০২২ হিসাব বছরে ৮০০ ও ২০২৩ হিসাব বছরে ৭৫০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে কোম্পানিটি। সর্বশেষ ২০২৪ হিসাব বছরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ২০০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে কোম্পানিটির পর্ষদ। ২০১৩ হিসাব বছরের পর কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের জন্য এত কম লভ্যাংশ ঘোষণা করেনি।

ডলার সংকটের কারণে লভ্যাংশের অর্থ বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কাছে প্রত্যাবাসন করতে না পেরে ২০২২ সালের নভেম্বরে চলতি মূলধন হিসেবে এ অর্থ ব্যবহারের জন্য বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে আবেদন করে ম্যারিকো বাংলাদেশ। পরে বিএসইসি সেটি অনুমোদন করে।

সর্বশেষ সমাপ্ত ২০২৪ হিসাব বছরে ম্যারিকো বাংলাদেশের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৪৬ টাকা ২৩ পয়সা, আগের হিসাব বছরের যা ছিল ১২২ টাকা ৯৩ পয়সা। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেষে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৬০ টাকা ৬৪ পয়সায়।

মুম্বাইভিত্তিক এফএমসিজি কোম্পানি ম্যারিকো ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশে ব্যবসা শুরু করে। ২০০৯ সালে এটি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ৪০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে বর্তমানে এর পরিশোধিত মূলধন ৩১ কোটি ৫০ লাখ টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ৩০০ কোটি ২০ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ারের ৯০ শতাংশই রয়েছে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ৬ দশমিক ৬৮, বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কাছে ১ দশমিক ৮৯ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে বাকি ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

source:  bonikbarta.net

 

marico bangladesh profit reduce

You may also like