July 23, 2024 8:03 am
Home Finance মুনাফায় বিএসআরএম, কারণ তিনটি

মুনাফায় বিএসআরএম, কারণ তিনটি

by fstcap

গত অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে লোকসান করলেও বিএসআরএমের দুই কোম্পানি চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে মুনাফা করেছে।

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিএসআরএম গ্রুপের দুটি প্রতিষ্ঠান গত অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে লোকসান করলেও চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে মুনাফা করেছে। প্রতিষ্ঠান দুটি হলো বিএসআরএম স্টিল এবং বিএসআরএম লিমিটেড। গত ২০২২–২৩ অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই–সেপ্টেম্বর) কোম্পানি দুটিকে বড় অঙ্কের লোকসান গুনতে হয়। তবে চলতি ২০২৩–২৪ অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই–সেপ্টেম্বর) মুনাফা করেছে এই দুই কোম্পানি।

বিএসআরএম লিমিটেড ও বিএসআরএম স্টিল গতকাল সোমবার গত জুলাই–সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে যে আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে, তা থেকে মুনাফার এ তথ্য জানা গেছে। আর্থিক প্রতিবেদনের কিছু তথ্য গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের অবহিত করা হয়। আর পুরো আর্থিক প্রতিবেদনটি কোম্পানির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।

আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত অর্থবছরের প্রথম তিন মাসের তুলনায় গত জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরে বিএসআরএম লিমিটেড ও বিএসআরএম স্টিলের আয় কমলেও দুটি কোম্পানিই এক প্রান্তিকের বিবেচনায় মুনাফা করেছে।

বিএসআরএম লিমিটেড গত জুলাই–সেপ্টেম্বর প্রান্তিক শেষে প্রায় ৬৬ কোটি টাকা কর–পরবর্তী মুনাফা করেছে। গত বছরের একই সময়ে কোম্পানিটি ১৬৬ কোটি টাকার বেশি লোকসান করেছিল। গত জুলাই–সেপ্টেম্বরে কোম্পানিটি ২ হাজার ২০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে।

আগের বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৭৫ কোটি টাকা। আর্থিক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের প্রথম প্রান্তিকে পণ্য উৎপাদনের পেছনেই খরচ হয়েছে ১ হাজার ৯৭২ কোটি টাকা, যা মোট আয়ের ৯৫ শতাংশের বেশি। এ বছরের জুলাই–সেপ্টেম্বরে কোম্পানির আয় কমলেও উৎপাদন খরচও কমেছে। এ সময়ে এ খাতে খরচ হয়েছে ১ হাজার ৮১৭ কোটি টাকা, যা মোট আয়ের প্রায় ৯০ শতাংশ। এ ছাড়া ফাইন্যান্স কস্ট বা আর্থিক খরচও কমেছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে। ফলে কোম্পানিটি আগের বছরের চেয়ে ৫৫ কোটি টাকার কম ব্যবসা করেও ভালো মুনাফা করেছে।

আর্থিক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, বিএসআরএম স্টিল গত জুলাই–সেপ্টেম্বরে ১ হাজার ৪৮০ কোটি টাকা আয় করেছে। গত বছরের একই সময়ে আয় ছিল ১ হাজার ৬৮২ কোটি টাকা। সেই হিসাবে কোম্পানিটির আয় গত বছরের চেয়ে ২০২ কোটি টাকা বা প্রায় ১২ শতাংশ কমেছে। তা সত্ত্বেও গত জুলাই–সেপ্টেম্বর শেষে কোম্পানিটি ৪৬ কোটি টাকা কর–পরবর্তী মুনাফা করেছে। গত বছরের একই সময়ে কোম্পানিটি ৩৫ কোটি টাকা লোকসান করেছিল। কিন্তু পণ্য উৎপাদন ও আর্থিক খরচ কমে যাওয়ায় কোম্পানিটি মুনাফা করেছে।

গত জুলাই–সেপ্টেম্বরে বিএসআরএম স্টিলের উৎপাদন বাবদ খরচ হয় ১ হাজার ২৮৫ কোটি টাকা, যা মোট আয়ের প্রায় ৮৭ শতাংশ। গত বছরের জুলাই–সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে কোম্পানিটি এ খাতে খরচ করে ১ হাজার ৫৪৬ কোটি টাকা, যা মোট আয়ের প্রায় ৯২ শতাংশ। সেই হিসাবে চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে পণ্য উৎপাদনে খরচ কমেছে কোম্পানিটির। মূলত কাঁচামালের দাম কমে যাওয়ায় উৎপাদন খরচ কমেছে।

জানতে চাইলে বিএসআরএমের একাধিক কর্মকর্তা জানান, এ বছর বিশ্ববাজারে কাঁচামালের দাম কমেছে। পাশাপাশি বেড়েছে পণ্যের দাম। এর বাইরে আর্থিক খরচের ক্ষেত্রেও বড় ধরনের সাশ্রয় হয়েছে। এ তিন কারণেই মূলত কোম্পানি দুটি প্রান্তিকের হিসাবে বড় অঙ্কের লোকসান কাটিয়ে এবার মুনাফা করেছে।

বিএসআরএম গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন সেনগুপ্ত প্রথম আলোকে বলেন, সব মিলিয়ে ব্যবসার খরচ যেভাবে বেড়েছে, তাতে এক বছরের বেশি সময় ধরে আমাদের সর্বাত্মক চেষ্টা ছিল দক্ষতা বাড়িয়ে উৎপাদন খরচ কমিয়ে আনা। এ জন্য আমরা নতুন কিছু উদ্ভাবনী উদ্যোগ নিয়েছি।

ফলে বিদ্যুৎ খাতে খরচসহ উৎপাদন খরচ উল্লেখযোগ্য পরিমাণ কমেছে। খরচ কমাতে এ সময়ে আমরা উৎপাদন সক্ষমতাও বাড়িয়েছি। যার ফলে মুনাফা করেছে কোম্পানি দুটি।

এদিকে কোম্পানি সূত্রে জানা যায়, ডলারের উচ্চমূল্যের কারণে গত বছরের জুলাই–সেপ্টেম্বরে তাদের বাড়তি যে খরচ হয়েছিল, গত জুলাই–সেপ্টেম্বরে তার পরিমাণ অনেক কমেছে। গত অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে ডলারের বাড়তি দামের কারণে বিএসআরএম লিমিটেডের অতিরিক্ত খরচ হয়েছিল ১৮৭ কোটি টাকা।

চলতি অর্থবছরের একই সময়ে সে খরচ নেমে এসেছে ৫২ কোটি টাকায়। আর বিএসআরএম স্টিলের ক্ষেত্রে গত অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে ডলারের বাড়তি দামের কারণে খরচ ছিল ১২২ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরের একই সময়ে তা নেমে আসে ৬২ কোটি টাকায়। গত বছরের তুলনায় এ বছর ডলারের দামে বড় ধরনের উত্থান না থাকায় এ বাবদ কোম্পানি দুটির আর্থিক সাশ্রয় হয়েছে, যা তাদের মুনাফা করতে সহায়তা করে।

source: prothomalo.com

You may also like